আসামী ধরতে গড়িমশির অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর, ২০১৭
গণবিপ্লব অনলাইন
ডেস্ক রিপোর্ট

বিশেষ প্রতিনিধি:

জুয়ারু হেকমত আলী হত্যাকান্ডের ঘটনার দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও মুল আসামীদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। আসামীদের গ্রেপ্তার না করায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে হেকমত আলীর পরিবার।
খুনের সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ গড়িমশি করছে বলে অভিযোগ করেছে হেকমতের পরিবার।
গত ১১ অক্টোবর ঘাটাইল উপজেলার যুগীহাটি গ্রামের জুয়ারু হেকমত আলীকে দুষ্কৃতিরা হত্যা করে লাশ তার বাড়ির পাশের পুকুরে ফেলে রেখে যায়।
এঘটনায় হেকমতের স্ত্রী রাজিয়া খাতুন বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে ঘাটাইল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার যুগীহাটি গ্রামের জুয়ারু হেকমত আলীকে গত ১০ অক্টোবর সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় অজ্ঞাত কয়েকজন। ১১ অক্টোবর রাত সাড়ে ৪টার দিকে হেকমত আলীর লাশ তার বাড়ির পুকুরে ভাসতে দেখে পরিবারের লোকজন। পরে পুকুর থেকে হেকমতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওইদিন হেকমতের স্ত্রী রাজিয়া খাতুন অজ্ঞাতদের আসামী করে ঘাটাইল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে যুগীহাটি গ্রামের আরেক জুয়ারু কামরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই আসামী হত্যার কথা স্বীকার করে কোর্টে ১৬৪ জবানবন্দি দেন। এছাড়াও চলতি মাসে যুগীহাতি গ্রামের হাবেল নামের আরেক জুয়ারুকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে কোর্টে প্রেরণ করে।
হেকমতের পরিবারের অভিযোগ হাবেলকে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার করলেও সাধারন মামলা দেখিয়ে কোর্টে চালান দেয় পুলিশ। চালানের কয়েকদিন পরই হাবেল জামিনে মুক্তি পান। এছাড়াও সন্দেহভাজন আসামীরা এলাকার আশপাশে ঘুরাফেরা করছে। পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করছে না। আসামীরা মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। এতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

হেকমতের স্ত্রী রাজিয়া খাতুন গণবিপ্লবকে জানান, এলাকার নামধারী মাতব্বরাও আসামীদের পক্ষ নিয়েছে। বিভিন্ন সময় আমাদের মামলা তুলতে ভয় দেখায়। পুলিশকে বার বার অনুরোধ করা হলেও এলাকায় আসে না। আসামীরা তাদের পরিবারদের সাথে সব সময় যোগযোগ করছে।

এবিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ঘাটাইল থানার উপ-পরিদর্শক এসআই আবু হানিফ গণবিপ্লবকে জানান, আসামীরা এলাকায় নেই। পর্যাপ্ত সোর্স নিয়োগ করা আছে আসামীদের ধরতে। আসামী ধরতে পুলিশের কোন গাফিলতি নেই । বাদী পক্ষের সাথে সব সময় যোগাযোগ করা হচ্ছে। তাদের অভিযোগ মিথ্যা।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ