কালিহাতীতে অবৈধ বালু উত্তোলনের প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ

প্রকাশিত : 4 নভেম্বর, 2019
মো. আল-আমিন খান
চীফ রিপোর্টার

কালিহাতী ৪ নভেম্বর : টাঙ্গাইলের যমুনা ও ধলেশ্বরী নদী থেকে প্রভাবশালী মহলের অবৈধ বালু উত্তোলণ বন্ধের দাবিতে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক অবরোধ করে স্থানীয়রা। সোমবার (৪ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কালিহাতী উপজেলার জোকারচর, কুশাবেনু, বেলুটিয়া, গোবিন্দগঞ্জ এলাকার লোকজন মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে। এতে মহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ ও প্রশাসনের আশ্বাসে দুপুর ১২ টায় অবরোধ প্রত্যাহার করে অবরোধকারীরা।

স্থানীয়রা জানান, রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় চেয়ারম্যান হযরত আলী ও ইউপি সদস্য সুলতান বাহিনী অবৈধভাবে যমুনা ও ধলেশ্বরী নদী থেকে বালু উত্তোলণ করে আসছে। এতে প্রতিবছর ওই এলাকার শতশত বসতভিটা, রাস্তাঘাট ও ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলিন হয়ে যাচ্ছে। চলতি বছরেও ভাঙনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

গতকাল ধলেশ্বরী নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলণের চেষ্টা করলে বাধা দেয় স্থানীয়রা। এ ঘটনার জের ধরে রোববার রাতে জোকারচর এলাকার চান্দু সরকারের ছেলে মাসুদ সরকারকে আটক করে কালিহাতী থানা পুলিশ।

সোমবার সকালে মাসুদকে আটকের খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুদ্ধ হয় স্থানীয়রা। পরে স্থানীয়রা ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের কালিহাতীর জোকারচর এলাকায় অবরোধ করে মাসুদ সরকারের মুক্তি ও বালু উত্তোলণ বন্ধে বিক্ষোভ করে। পরে কালিহাতী উপজেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার রহমান ঘটনাস্থলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেন অবরোধকারীরা।

এ বিষয়ে সহকারি কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে গণবিপ্লবকে বলেন, গ্রামবাসীর দাবীর বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন।

এদিকে আটক মাসুদ রানাকে দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে গণবিপ্লবকে নিশ্চিত করেছেন কালিহাতী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত ) নজরুল ইসলাম।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ