কালিহাতীতে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ (ভিডিও সহ)

প্রকাশিত : ২৯ নভেম্বর, ২০১৮
মো. আল-আমিন খান
চীফ রিপোর্টার

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী টাঙ্গাইল-৪(কালিহাতী) আসনে সরকার দলীয় প্রার্থী হাছান ইমাম খাঁনের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন। বুধবার(২৮ নভেম্বর) কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারি রিটার্নিং অফিসার অমিত দেবনাথের কাছে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে তিনি এই অভিযোগ করেন।

প্রাজ্ঞ পার্লামেন্টারিয়ান আবদুল লতিফ সিদ্দিক বলেন, প্রার্থীদের আচরণ বিধি মেনে চলার বিষয়টি কঠোরভাবে দেখার কথা। কিন্তু তা হচ্ছে না। এতে আমি বিব্রত তা না, আমি বিপন্ন তাও না- আমি ক্ষুব্ধ। আমার ক্ষুব্ধতাটা আমি সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কাছে বিনীতভাবে জানালাম। অভিযোগ শুনে সহকারী রিটার্নিং অফিসার অমিত দেবনাথ নীরব থাকেন। লতিফ সিদ্দিকী বলেন, ‘আপনি মিছিল দেখেন নি? স্লোগান শোনেন নি? মাইকের শব্দ পাননি? ১০ তারিখের আগে তো মিছিল-সমাবেশ নিষিদ্ধ’। মনোনয়নপত্র দাখিল করে বেড়িয়ে এসে লতিফ সিদ্দিকী সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশে একটি সু-শৃঙ্খল নির্বাচন চায়। কারণ একটি দেশের জাতীয় মর্যাদা নির্ভর করে জাতীয় নির্বাচনের উপর। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী সুষ্ঠু নির্বাচন চাইলেও স্থানীয় কিছু লোকজন এমন অপকর্ম করেছে যে কারণে জনগন ক্ষুব্ধ হয়ে আওয়ামীলীগের লোকরাই আমাকে নির্বাচন করতে বাধ্য করেছে। বিজয়ী হওয়ার শতভাগ আশাবাদী তিনি।

এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিএনপি প্রার্থী লুৎফর রহমান মতিন মনোনয়নপত্র জমা দিতে সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কক্ষে যান। এ সময় কয়েক হাজার কর্মী-সমর্থক মুহুর্মুুহু করতালি ও স্লোগানের মাধ্যমে বর্তমান সংসদের এমপি হাছান ইমাম খাঁন সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। সে সময় সহকারী রিটার্নিং অফিসার অমিত দেবনাথ সরকার দলীয় এমপি হাছান ইমাম খাঁনের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন। আ’লীগ নেতাকর্মীদের চাপে বিএনপি প্রার্থী বাধ্য হয়ে কক্ষের বাইরে চলে যান। পরে বিএনপি প্রার্থী লুৎফর রহমান মতিন মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, মানুষ বিএনপিকে ভোট দিতে উন্মুখ হয়ে আছে। অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হলে এ আসনে ধানের শীষের বিজয় সুনিশ্চিত।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সরকার দলীয় প্রার্থী হাছান ইমাম খাঁনের বার বার নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের বিষয়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসার অমিত দেবনাথ বলেন, আচরণ বিধির বিষয়গুলো সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাফিসা আক্তার দেখভাল করবেন। এ পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কি-না জানতে চাইলে সহকারী রিটার্নিং অফিসার কোন কথা বলেন নি।

বর্তমান এমপি হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারীর নেতা-কর্মীদের নিয়ে কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ের সামনে এভাবেই মাইক দিয়ে স্লোগান দিচ্ছে। ছবি: গণবিপ্লব

প্রকাশ, টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনে সিদ্দিকী পরিবারের তিন ভাইসহ মোট ১৬জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এর মধ্যে সিদ্দিকী পরিবারের তিন ভাই হচ্ছেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী ও শামীম আল মনসুর আজাদ সিদ্দিকী। এ আসনে ঐক্যফ্রণ্টের মনোনয়ন পেতে কৃষক শ্রমিক জনতালীগের তিন নেতা দলীয় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হচ্ছেন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী, দলের জেলা শাখার নেতা শামীম আল মনসুর আজাদ সিদ্দিকী এবং কালিহাতী উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করে সদ্য দলে যোগ দেয়া ইঞ্জিনিয়ার মো. লিয়াকত আলী।

টাঙ্গাইল-৪(কালিহাতী) আসনে মনোনয়নপত্র দাখিলকারীরা হচ্ছেন, আবদুল লতিফ সিদ্দিকী(স্বতন্ত্র), মোহাম্মদ হাছান ইমাম খাঁন (আওয়ামী লীগ), লুৎফর রহমান মতিন, বেনজির আহম্মেদ টিটু ও ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হালিম(বিএনপি), বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম (কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ), শামীম আল মনছুর আজাদ সিদ্দিকী (কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ), ইঞ্জিনিয়ার লিয়াকত আলী (কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ), সাদেক সিদ্দিকী (জাতীয় পার্টি-জেপি), মির্জা আবু সাইদ (ইসলামী আন্দোলন), খন্দকার মোন্তাজ আলী(জাকের পার্টি), সৈয়দ মোস্তাক হোসেন রতন (জাতীয় পার্টি এরশাদ), এসএম আবু মোস্তফা (জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল), শুকুর মাহমুদ, বাকির হোসেন ও আবুল কাশেম (স্বতন্ত্র)।

 

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ