কালিহাতীতে জাল সনদে শিক্ষকতার অভিযোগ

প্রকাশিত : ১৩ নভেম্বর, ২০২০

বেড়ি পটল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়। ফাইল ছবি

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে শিক্ষা বিভাগের চোখ ফাঁকি দিয়ে জাল সনদ ব্যবহার করে দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষকতায় নিযুক্ত হয়ে নিয়মিত বেতনভাতা উত্তোলন করার অভিযোগ উঠেছে মোখলেছুর রহমান নামের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। তিনি উপজেলার বেড়িপটল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার বেড়িপটল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের বিএসসি (স্নাতক) সনদ দিয়ে সহকারি প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পান মোখলেছুর রহমান। এরপর দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ে সহকারি প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়ে সরকারি বেতনভাতা গ্রহণ করে আসছে। এদিকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল হালিম মিয়া অবসরে গেলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পান মোখলেছুর রহমান।

নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক বেড়িপটল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষক জানায়, মোখলেছুর রহমান বিএ পাশ করে কিভাবে বিএসসি (স্নাতক)-র সনদ দিয়ে সহকারি শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পেলেন তা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের ক্ষতিয়ে দেখা দরকার।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মোখলেছুর রহমানের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেন তিনি বিএসসি( স্নাতক)-র এর সনদ দিয়ে সহকারি শিক্ষক হিসেবে নিয়োগের কথা স্বীকার করলেও তার সনদের বিষয় কোন মতামত না দিয়েই তিনি ফোন কেটে দেন।

সংবাদ চলবে…।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব
এইমাত্র পাওয়া