জুয়াড়িদের মূলহোতারা ৫ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি; প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারী, ২০২০

ভূঞাপুর ৬ জানুয়ারি : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সাংবাদিকদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় জুয়াড়িদের মূলহোতারা ৫ দিনেও গ্রেপ্তার না হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার (৬ জানুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আসলাম হোসাইনের হাতে সাংবাদিকরা স্মারকলিপি তুলে দেন।

অন্যদিকে সাংবাদিকদের ওপর জুয়াড়িদের হামলার ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানা অফিসার ইনচার্জ বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিক ও পিস প্রেসার গ্রুপ ভূঞাপুর শাখা।

স্মারকলিপিতে জানানো হয়, ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ঘাট সংলগ্ন এলাকায় সাংবাদিকরা জুয়ার আসরের সচিত্র সংবাদ সংগ্রহে যান। এসময় জুয়াড়িরা সাংবাদিকদের আটক করে হামলা চালায়। হামলায় চারজন সাংবাদিক গুরুতর আহত হয়। কিন্তু ঘটনার পাঁচদিন অতিবাহিত হলেও মুলহোতারা এখনও গ্রেপ্তার হয়নি। এতে সাংবাদিকরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে শাস্তির আওতায় আনার জন্য প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে স্মারকলিপি দেয়া হয়।

ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে স্মারকলিপি প্রদানের সময় উপস্থিত ছিলেন, ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহআলম প্রামানিক, সাবেক সভাপতি আসাদুল ইসলাম বাবুল, সাংবাদিক আতোয়ার রহমান মিন্টু, মিজানুর রহমান, সিরাজুল ইসলাম কিসলু, আব্দুর রশিদ তালুকদার, সৈয়দ মাসুদুল হক টুকু প্রমুখ।

এছাড়া সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিকের পক্ষে থেকে থানা অফিসার ইনচার্জ রাশিদুল ইসলামের হাতে স্মারকলিপি প্রদানের সময় উপস্থিত ছিলেন সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিক ভূঞাপুর শাখার সভাপতি অধ্যাপক মির্জা মহীউদ্দিন আহমেদ, সাধারন সম্পাদক সন্তোষ কুমার দত্ত, পৌর সভাপতি আব্দুছ সালাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে জুয়ার আসরের সচিত্র সংবাদ সংগ্রহে গিয়ে সাংবাদিকদের উপর হামলা চালায় জুয়াড়িরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার গোবিন্দাসী ঘাট সংলগ্ন কাশবন এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় ডিবিসি টেলিভিশনের টাঙ্গাইল প্রতিনিধি সোহেল তালুকদার, ক্যামেরা পারসন আশিকুর রহমান, সাপ্তাহিক গণবিপ্লব ও ইত্তেফাকের সাংবাদিক অভিজিৎ ঘোষ, দৈনিক একুশের বাণী পত্রিকার সাংবাদিক হৃদয় মন্ডলসহ আরো দুইজন আহত হয়।

এসময় ডিবিসির একটি ক্যামেরা ভাঙচুর এবং অপর একটি ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়। এছাড়া ডিবিসির বুম (মাইক্রোফোন) ভাঙচুর করা হয়। এঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতেই ডিবিসির টাঙ্গাইল প্রতিনিধি সোহেল তালুকদার বাদী হয়ে জুয়াড়ু প্রধান ফজল মন্ডলকে প্রধান আসামী করে ৮জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত শতাধিক জুয়াড়ুর বিরুদ্ধে ভূঞাপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

সর্বশেষ সংবাদ

এইমাত্র পাওয়া