টাঙ্গাইলে কাঁচা বাজারে আগুন; পেঁয়াজের ঝাঁজ আরো বেশি

প্রকাশিত : ১৬ নভেম্বর, ২০১৯
নিজস্ব প্রতিবেদক
টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইল ১৬ নভেম্বর : টাঙ্গাইলের বাজারগুলোতে লাউ, মূলা, শাক থেকে শুরু করে বাজারে সব সবজির দাম চড়া। পেঁয়াজের ঝাঁজ তো আরো বেশি। শহরের পার্কবাজার, ছয়আনী বাজার, আমিন বাজার(গোডাউন বাজার), সাবালিয়া বাজার, নতুন বাস টার্মিনাল বাজার, বটতলা বাজার, বৈল্যা বাজার ঘুরে এমন চিত্র পাওয়া গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ২৪০-২৫০টাকা, ফুলকপি প্রতিকেজি ৬০-৭০ টাকা, বাধাকপি ৪০-৫০ টাকা, বড়বটি ৩০-৪০ টাকা, লাল শাক ২৫-৩০ টাকা, টমেটো(বিদেশি) ৮০-১০০ টাকা, গাজর(বিদেশি) ৯০-১০০টাকা, পালং শাক ৩০-৪০ টাকা, ধনে পাতা ১০-১১০ টাকা, শিম ৫০-৬০ টাকা, শশা ৭০-৮০ টাকা, মূলা ৩০-৪০ টাকা, ঢেড়স ৫০-৬০ টাকা, ঝিঁঙ্গে ৪০-৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৫০-৬০ টাকা, জলপাই ২০-২৫ টাকা, আলু(নতুন) ৯০-১১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া সব সময়ের সবজি আলু(প্রকারভেদে) ৩০-৬০ টাকা, পেঁপে ২০-৩০, কাঁচকলা ৩০-৩৫টাকা(প্রতিহালি), প্রতিকেজি করলা ৫০-৬০টাকা, পটল ৪০-৫০ টাকা, বেগুন ৪০-৫০ টাকা, লাউ(মাঝারি সাইজ) ৫০-৬৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

টাঙ্গাইলের পাইকারী বাজারগুলোতে গিয়ে দেখা যায়, আগাম শীতকালীন সবজি সবেমাত্র বাজারে উঠতে শুরু করেছে। তুলনামূলকভাবে দাম বেশি থাকায় খুচরা সবজি বিক্রেতারা বেছে বেছে ভাল সবজিগুলো কিনে নিচ্ছেন। খুচরা বিক্রেতারা জানান, বছরের এই সময়ে শীতকালীন সবজির দাম সাধারণত নাগালের বাইরে থাকে। কিন্তু এবার আগাম শীতের সবজি বাজারে বেশি আমদানি হওয়ায় দাম ক্রেতার নাগালের মধ্যেই। তারা আরো জানান, দেশের উত্তরাঞ্চল থেকে সাধারণত শীতের সবজি আগে বাজারে আসে।

এবার টাঙ্গাইলের কৃষকরাও শীতকালীন সবজির আগাম চাষ করায় সেগুলো বাজারে ওঠেছে। ফলে আগাম শীতকালীন সবজি বাজারে আগেই এসেছে। দাম সামান্য কিছুটা বেশি হলেও সব ধরণের ক্রেতারা সবজি কিনতে পারছে। ভরমৌসুমে সবজির দাম আরো কমতে পারে বলে মনে করছেন তারা।

পার্ক বাজারে ক্রেতা প্রবীর কর্মকার, মো. আব্দুল মালেক, বটতলা বাজারে ক্রেতা আবু সুফিয়ান, আলম তালুকদার, সাবালিয়া বাজারে শামীম মল্লিক, রুস্তম আলী সহ ক্রেতারা গণবিপ্লবকে জানান, কাঁচা বাজারে শীতের আগাম সবজি এসেছে। দাম তুলনামূলকভাবে অনেকটা বেশি হলেও নাগালের বাইরে নয়। কিন্তু পেঁয়াজের দাম গত দুইদিনের ব্যবধানে ৯০-১০০ টাকা বেড়ে যাওয়ায় তারা ক্ষুব্দ ও হতাশ।


খুচরা বাজারে সবজি বিক্রেতা মো. শাহাদাত হোসনে, মো. হানিফ উদ্দিন, শামীমুর রহমান সহ অনেকেই গণবিপ্লবকে জানান, পাইকারী বাজারে সব ধরণের সবজিই পাওয়া যাচ্ছে। নতুন সবজির দাম একটু বেশি। পেঁয়াজের বাজার গত ১০-১৫দিন যাবত সকাল-বিকাল দাম বাড়ছে। বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) বিকালে প্রতিকেজি পেঁয়াজের দাম ছিল ১৮০-১৯০ টাকা, শুক্রবার(১৫ নভেম্বর) সকালে বেড়ে হয়েছে ২৪০-২৫০টাকা।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার সবজি চাষী বিক্রমহাটীর নুরুল ইসলাম, আ. রশিদ, ছামান আলী, মন্টু সরকার, গালা এলাকার সাইফুল, মজিদ মুন্সী, দাইন্যা এলাকার রফিকুল ইসলাম, আব্দুল মজিদ, আব্দুল মান্নান, সবেছ আলী সহ অনেকেই গণবিপ্লবকে জানান, তারা বেশি দাম পাওয়ার আশায় আগাম শীতের সবজির চাষ করেন। কিন্তু এবার উত্তরাঞ্চল থেকে শীতের আগাম সবজি বাজারে আসায় তারা আশানুরূপ লাভবান হতে পারছেন না।


স্থানীয় পেঁয়াজ চাষী নুরুদ্দিন, জামাল শেখ, আবুল হোসেন গণবিপ্লবকে জানান, তাদের জমির পেঁয়াজ এখনো বিক্রি করার উপযোগী হয়নি। বাজারের পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় তারা পেঁয়াজের উপড়েরর অংশ(কালী) বাজারে বিক্রি করে বেশ ভাল দাম পাচ্ছেন। এতে তারা খুব খুশি।


টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মোশারফ হোসেন খান গণবিপ্লবকে জানান, দ্রব্যমূল্যের বিষয়ে বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটি মনিটরিং করে থাকে। পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির বিষয়ে টাঙ্গাইলের বিভিন্ন বাজারে দ্রুত ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হবে।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ