টাঙ্গাইলে ফুসলিয়ে ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত : ৬ এপ্রিল, ২০১৬
গণবিপ্লব অনলাইন
ডেস্ক রিপোর্ট

গণবিপ্লব রিপোর্টঃ

Adalot-1.

টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শরীফ উদ্দিন আহমেদ বুধবার(৬ এপ্রিল) এক রায়ে ফুসলিয়ে ধর্ষণের দায়ে চান খা নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন। দন্ডিত চান খা(৩৩) টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার পাকুটিয়া উত্তর পাড়া গ্রামের মো. মোকছেদ খানের ছেলে।
ঘটনার বিবরণে প্রকাশ, বিগত ২০০৮ সালের ২ আগস্ট গোপালপুরের মো. মোকছেদ খানের ছেলে চান খা প্রতিবেশি মো. হাবিবুর রহমানের মেয়ে হাফিজা খাতুনকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে প্রথম ধর্ষণ করে। পরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দুই মাসে ১৫ বার ধর্ষণ করে। এতে হাফিজা গর্ভবতী হলে বিয়ের জন্য চাপ দিলে চান খা ধর্ষণের কথা অস্বীকার করে। পরে গর্ভের সন্তান ভূমিষ্ঠ হলে ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে হাফিজার সন্তানের বাবা চান খা বলে প্রমাণিত হয়। এ বিষয়ে বিগত ২০০৯ সালের ২৩ মার্চ মো. হাবিবুর রহমানের বাড়িতে স্থানীয় ইউপি সদস্য তোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে সালিশী বৈঠক হয়। কিন্তু সালিশে চান খা উপস্থিত না হওয়ায় সালিশি বৈঠক বিষয়টি আদালতের মাধ্যমে নিস্পত্তির সিদ্ধান্ত দেয়। পরে ২০০৯ সালের ৬ মে হাফিজা খাতুন বাদি হয়ে গোপালপুর থানায় মামলঅ দায়ের করেন।
দীঘ শুনানী শেষে বুধবার(৬ এপ্রিল) টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শরীফ উদ্দিন আহমেদ উল্লেখিত রায় দেন।
সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, বিশেষ পিপি একেএম নাছিমুল আক্তার ও বিবাদি পক্ষে ছিলেন, অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আইয়ুব।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ