টাঙ্গাইলে সস্তায় সবজি কিনে হাসি ক্রেতার মুখে

প্রকাশিত : ৭ জানুয়ারী, ২০১৯
মো. আল-আমিন খান
চীফ রিপোর্টার

টাঙ্গাইলের বাজারে প্রচুর শীতকালীন সবজি আমদানি হওয়ায় দাম অনেকটাই কমেছে। ফলে সস্তায় সবজি কিনে হাসি ক্রেতার মুখে। গত এক সপ্তায় ৪০ টাকা কেজির বেগুন বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকায়। এছাড়া প্রায় সবজিতেই কেজিপ্রতি ৫-২০ টাকা দাম কমেছে।

সরেজমিনে টাঙ্গাইল শহরের পার্কবাজার, ছয়আনি, পাঁচআনি বাজার, বটতলা, সাবালিয়া, আমিন বাজার(গোডাউন বাজার), নতুন বাস টার্মিনাল বাজার, বৈল্যা বাজার, সাবালিয়া বটতলা বাজার ঘুরে একই পণ্যের ভিন্ন ভিন্ন দাম দেখা গেছে। তবে সব বাজারেই শীতের সবজির দাম কমেছে।

গত সপ্তাহের প্রতিকেজি ৩৫ টাকার গাজর বিক্রি হচ্ছে ২০-২২ টাকা, ৪০ টাকার বেগুন বিক্রি হচ্ছে ২০-২৫ টাকা, ৩০ টাকার পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৫-২৬ টাকায়, ৪০ টাকার শসা বিক্রি হচ্ছে ২৮-৩০ টাকা, ৫০ টাকার টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৩০-৩৫ টাকা, ৪০ টাকার শিম বিক্রি হচ্ছে ২০-২৫ টাকা, ৫০ টাকার নতুন আলু বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৪০-৪২ টাকা, ৬০ টাকার বরবটি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৪৫ টাকা, ১০০ টাকার মিষ্টি কুমড়া বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকা, ১২০ টাকার লাউ বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা, ৬০ টাকার ফুলকপি ২০-২৫ টাকা, ৪০ টাকার বাধাকপি ২০-২২ টাকা। একইভাবে গত এক সপ্তায় প্রায় প্রতিটি শীতের সবজির দাম কমেছে।

টাঙ্গাইল শহরের পার্কবাজারের পাইকারি সবজি বিক্রেতা রুহুল আমিন, মমিনুর রহমান সহ অনেকেই জানান, বাজারে সবজির আমদানি বেশি হওয়ায় অনেক কম দামে সবজি বিক্রি করতে হচ্ছে। টাঙ্গাইল সদর উপজেলার দাইন্যা এলাকার সবজি চাষী আব্দুল মান্নান ও হযরত আলী জানান, তারা দুই ও এক একর ক্ষেতে ফুলকপি-বাধাকপি চাষ করেছিলেন। কিছুদিন আগেও বাজার বেশ চড়া ছিল। কিন্তু হঠাৎই সবজির দাম কমে যাওয়ায় তারা লোকশানের আশঙ্কা করছেন।

বটতলা বাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা আবু হানিফ, দয়াল, জুয়েল মিয়া সহ অনেকেই জানান, গত এক সপ্তায় বাজারে স্থানীয়ভাবে চাষকৃত এবং উত্তরাঞ্চল থেকে প্রচুর শীতকালীন সবজি বাজারে আসার ফলে দাম কমেছে। তারা যেমন দামে কিনেন তার চেয়ে সামান্য দাম বেশি নিয়ে বিক্রি করেন। এতে যে লাভ হয় তা দিয়েই নিজেদের সংসার খরচ চালান।

সাবালিয়া বাজারে সবজি কিনতে আসা নাজিমউদ্দিন, রসু মিয়া, আব্দুর রহমান, বটতলা বাজারে আসা নিয়ামত আলী, কমল রবিদাস, আব্দুল জলিল সহ অনেকই জানান, তারা গত সপ্তাহের চেয়ে অনেক কম দামে শীদের সবজি কিনতে পেরে খুব খুশি। শীতের তীব্রতা বেশি থাকায় ক্রেতা অনেকটা কম হওয়ায় সবজির দাম কমেছে বলে মনে করেন তারা। তবে আবহাওয়া শুস্ক হয়ে ওঠলে দাম বাড়তে পারে বলে তারা ধারণা করছেন।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

সর্বশেষ সংবাদ




এইমাত্র পাওয়া