নাগরপুরে পপি হত্যাকারী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
গণবিপ্লব
রিপোর্ট

স্টাফ রিপোর্টারঃ 


টাঙ্গাইলের নাগরপুরে স্কুল ছাত্রী খালেদা আক্তার পপির হত্যাকারী গোলাম মোস্তফা রাকিবকে গ্রেপ্তার করে জেল-হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
পুলিশ জানায়, উপজেলার তারাবাড়ী গ্রামের আবুল কালাম ওরফে খালেকের মেয়ে উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী খালেদা আক্তার পপি(১৬) হত্যা মামলার মূল আসামি গোলাম মোস্তফা রাকিবকে(২২) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাকিব উপজেলার সহবতপুর উত্তর পাড়া গ্রামের ওয়াজেদ আলীর ছেলে। রোববার(২ সেপ্টেম্বর) ভোরে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। রাকিবের স্বীকারোক্তি মোতাবেক হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত গামছা, চাকু, বহনকৃত একটি স্কুল ব্যাগ, পপির পরিহিত বোরকা ও ব্যবহৃত মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত রাকিব পুলিশকে জানান, পপির সাথে রাকিবের মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে বিয়ের জন্য চাপ দিলে পপিকে গত ৫ আগস্ট রাকিব কৌশলে বেড়ানোর কথা বলে হাজ¦ীর পুকুর পাড়ে নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। পরে তার কাছে থাকা গামছা দিয়ে পপির গলায় প্যাঁচ দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে এবং মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য চাকু দিয়ে জবাই করে।

নাগরপুর থানার আফিসার্স ইনর্চাজ মাঈন উদ্দিন জানান, মুক্তিযোদ্ধা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী খালেদা আক্তার পপিকে গত ৫ আগস্ট শ্বাসরোধে ও গলাকেটে হত্যা করে লাশ নলসন্ধা ভাটপাড়া গ্রামে জিয়া খালি সংলগ্ন জেলে পাড়া হাজীর পুকুর পাড়ে ফেলে রেখে যায়। হত্যাকারী গোলাম মোস্তফা রাকিব এর স্বীকারোক্তি অনুয়াযী হত্যার সময় ব্যবহৃত চাকু, গামছা, বোরকা, স্কুল ব্যাগ উদ্ধার করা হয়। ঘাতক রাকিব ২৮দিন আত্মগোপন করে থাকার পর তাকে রোববার ভোরে গ্রেপ্তার করে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ