নাগরপুরে যমুনার ভাঙন রক্ষা বাধে ধস ॥ হুমকির মুখে ৪ গ্রাম

প্রকাশিত : ৩ মে, ২০১৬
গণবিপ্লব অনলাইন
ডেস্ক রিপোর্ট

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃ 

Tangail-Nagorpur-jumuna-03.05.2016
টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার শাহজানী, আটাপাড়া, মারমা ও ধলাই গ্রামের প্রায় দুই কি.মি. এলাকা জুড়ে যমুনা নদীর ভাঙন রক্ষা বাধ ধসে পড়েছে। রোববার(১ মে) সন্ধ্যায় আকস্মিক জলোচ্ছাসের আঘাতে নাগরপুর অংশের ৭ কি.মি. যমুনা নদীর ভাঙন রক্ষা বাধের প্রায় ২ কি.মি. দেবে গেছে। এতে উপজেলার শাহজানী, আটাপাড়া, মারমা ও ধলাই গ্রাম হুমকির মুখে পড়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, নাগরপুর উপজেলার শাহজানী, আটাপাড়া, মারমা ও ধলাই গ্রামে ১২২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৭ কি.মি. যমুনা নদীর ভাঙন রক্ষা বাধের কাজ শুরু করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জামিল ইকবাল লিমিটেড(আইজে-জেভি)। কাজ শেষ না হতেই রোববার(১ মে) সন্ধ্যায় হঠাৎ ঝড় শুরু হলে নদীর পানি ৪-৫ ফুট উচুতে উঠে। এসময় প্রচ- বেগে ঢেউ এসে বাধের উপর আছড়ে পড়ে। এতে চেকির মোড় থেকে খগেন ঘাট হয়ে আটাপাড়া উত্তর সীমানা পর্যন্ত প্রায় দুই কি.মি. বাধ ধসে যায়। সেই সাথে বাধের কিছু স্লোব নষ্ট হয়ে যায়।
স্থানীয় চা দোকানী মো. আইয়ুব আলী (৫৮) জানান, ওই দিন সন্ধ্যা ৬টার দিকে ঝড় শুরু হলে ভাঙন রক্ষা বাধ ধসে যেতে থাকে।
শাহজানী এমএ করিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবুল কাশেম বলেন, ঝড়ের কারণে নদীতে জলোচ্ছাস শুরু হয়। নদীর পানি ৪ থেকে ৫ ফুট ওপড়ে এসে বাধে আঘাত করে। এতে ভাঙন রক্ষা বাধ দেবে যায়। জরুরি ভিত্তিতে ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন না করলে মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাবে আটাপাড়া, মারমা ও ধলাই গ্রাম।
এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শাহজাহান সিরাজ জানান, প্রকৃতিক দুর্যোগের কারণে এমনটি হয়েছে। চিন্তার কিছু নেই। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে। সোমবার(২ মে) বিকালে পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রজেক্ট ডিরেক্টর (পিডি) মো. আমিনুল হক ক্ষতিগ্রস্ত ভাঙন রক্ষা বাধ পরিদর্শন করেন।
উল্লেখ্য, টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার চরাঞ্চল ভাড়রা ইউনিয়নের শাহজানী, আটাপাড়া, মারমা ও ধলাই গ্রাম প্রতি বছরই যমুনা নদীর ভাঙনের কবলে পড়ে। ইতোমধ্যে ওই ৪টি গ্রামের বহু ঘরবাড়ি ও ফসলী জমি যমুনা গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। সম্প্রতি যমুনার ভাঙনের কবল থেকে নাগরপুরকে রক্ষায় ১২২ কোটি টাকা ব্যয়ে ভাঙন রক্ষা বাধ প্রকল্পের কাজ শুরু করা হয়েছে। কাজ শেষ না হতেই বাধে ভাঙন দেখা দিয়েছে।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ