নাগরপুরে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে ভবন নির্মাণ

প্রকাশিত : ১৪ মে, ২০২০

টাঙ্গাইলে নাগরপুর উপজেলার সলিমাবাদ ইউনিয়নের তেবাড়িয়া গ্রামবাসীর একমাত্র চলাচলের রাস্তা চিরদিনের জন্য বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সরকারে নির্দেশ অমান্য করে একটি স্বার্থনেশি মহল পকেট ভারী করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশে শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য দেশের প্রতিটি উপজেলা থেকে শুরু করে গ্রাম পর্যায়ে শিক্ষা বিস্তারের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় নাগরপুর উপজেলা তেবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি ৪ তলা নতুন ভবন নির্মাণের জন্য সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন। সরকারি এই ভবনটি নির্মাণের জন্য অত্র বিদ্যালয়ের নির্দিষ্ট জমির দাগ নম্বারসহ সিএন্ডবি রোডের পশ্চিম পাশে ভবনটি নির্মাণের জন্য অনুমোদিত হয়।

দু:খের বিষয় সরকারের অনুমোদিত ৪ তলা ভবনটি স্কুলের পশ্চিম পাশে নির্দিষ্ট জায়গার পরিবর্তে দক্ষিণ পাশে ভবনটি নির্মাণ কাজ শুরু করেছে।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ পাশে এলাকাবাসীর যাতায়াতের জন্য ৪ ফিট ‌প্রসস্থ একটি মাত্র রাস্তা রয়েছে। নতুন ভবনটি দক্ষিণ পাশে নির্মাণ করা হলে ওই ৪ ফিট রাস্তাটি চিরদিনের জন্য বন্ধ হয়ে যাবে। এমনকি ওই রাস্তার পাশে বেশকিছু দোকানপাটও বন্ধ হয়ে যাবে।

এলাকাবাসী এই দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পেতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোন লাভ হয়নি। পরবর্তীতে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের রাজপথের সৈনিক বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ও পুনর্বাসন সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. সাজ্জাদ হোসেন সুমন‌, এলাকাবাসীর দুর্ভোগের কথা শুনে এলাকার জনসাধারণকে কষ্টের হাত থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যে গত ১১ মে তারিখে টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক’র ই-মেইলে এলাকাবাসীর দুর্ভোগের কথা গুলো বিস্তারিত ভাবে উল্লেখ করে একটি আবেদন পত্র পাঠিয়েছেন বলে তিনি জানান। গত ১৩ মে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার, সেগুনবাগিচা ঢাকা, এর নিকট আর একটি আবেদনপত্র দিয়েছেন। দুটি আবেদন পত্রেই এলাকাবাসীর কষ্টের কথা গুলো টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম, নাগরপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফজল ইসলাম, নাগরপুর উপজেলার ইঞ্জিনিয়ার মো. মাহাবুব হোসেন, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার এর নিকট এলাকাবাসীর দুর্ভোগ লাঘবের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায়, সরকারের নির্দেশ অমান্য করার দৃষ্টতার ঊৎস কোথায়?

অসহায় এলাকাবাসী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা অসহায় মানুষের নেত্রী বঙ্গকন্যা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব
এইমাত্র পাওয়া