প্রবাসীদের সহযোগিতায় চিকিৎসা চলছে এন্ড্রু কিশোরের

প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর, ২০১৯

বিনোদন ২৫ নভেম্বর : সুখ-দুঃখ, হাসি-আনন্দ, প্রেম-বিরহ সব অনুভূতির গানই তিনি গেয়েছেন। তার সবচেয়ে জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে- জীবনের গল্প আছে বাকি অল্প, হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস, ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে, আমার সারা দেহ খেয়ো গো মাটি, আমার বুকের মধ্যে খানে, পৃথিবীর যত সুখ আমি তোমার ছুঁয়াতে খুঁজে পেয়েছি, সবাইতো ভালোবাসা চায়, বেদের মেয়ে জোসনা আমায় কথা দিয়েছে, তুমি আমার জীবন আমি তোমার জীবন, ভালো আছি ভালো থেকো, তুমি মোর জীবনের ভাবনা, চোখ যে মনের কথা বলে, পড়েনা চোখের পলক এমন অসংখ্যা গানের বাদশা ও খ্যাতিমান সঙ্গীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর অসুস্থ অবস্থায় গত ৯ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়েছিলেন। জানা যায়, তার শরীরে ক্যান্সার ধরা পরেছে। এখনও চিকিৎসা চলছে তার। কিংবদন্তি এ গায়কের চিকিৎসার সময় বেড়ে যাওয়ায় খরচও বেড়েছে।

আজ রোববার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ গণমাধ্যমকে জানান, ‘সকালে এন্ড্রু কিশোর দা’র সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। ভেঙে পড়েছেন তিনি। অনেক আবেগী হয়ে গেছেন। জানলাম তার চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর হাসপাতাল থেকে বাজেট দেয়া হয়েছে প্রায় দুই কোটি টাকা। খ্যাতিমান এই শিল্পীর এই কঠিন সময়ে তার পাশে দাঁড়ানো প্রয়োজন। এরই মধ্যে প্রবাসীরা তাকে সহযোগিতার জন্য ফান্ড করেছে। আশা করবো দেশের মানুষও তার পাশে দাঁড়াবেন। তাকে আমরা হারাতে চাই না।

তিনি আরও জনান, এন্ড্রু কিশোরকে যে কেমোথেরাপি দেওয়া হচ্ছে তার প্রতিটির মূল্য প্রায় ৯ লাখটাকা। এরই মধ্যে গুণী এই শিল্পীর চিকিৎসায় তার পরিবার কোটি টাকারও বেশি খরচ করে ফেলেছেন। প্রয়োজন আরও অনেক টাকা। গান গেয়ে কোটি কোটি মানুষের হৃদয় জুড়িয়েছেন যিনি, আজ তার পাশে কে দাঁড়াবে! কেউ সহযোগিতা করতে চাইলে এই লিংকে প্রবেশ করতে পারেন।

এন্ড্রু কিশোরের শিষ্য কণ্ঠশিল্পী মোমিন বিশ্বাস জানান, এ পর্যন্ত তার ৩টি সাইকেলে ১২টি কেমোথেরাপি সম্পন্ন হয়েছে এবং আগামী ২৬ নভেম্বর থেকে কেমোথেরাপির পরবর্তী সাইকেল শুরু হবে এবং আরও ৩টি সাইকেলে আরও ১২টি কেমোথেরাপি দেওয়া হবে। সেখানকার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এ চিকিৎসা আরও প্রায় আড়াই থেকে তিনমাস চলবে।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া