বিচি কলা গাছ এখন বিলুপ্তির পথে

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী, ২০১৯
সৈয়দ সাজদ আহম্মেদ রাজু
ধনবাড়ী প্রতিনিধি

সবরি ও সাগর কলার ব্যাপক হারে চাষ হওয়ায় উপজেলায় বিচি কলাগাছ এখন তেমন চোখে পরেনা।
পুষ্টিগুন বিচারে বিচি কলা অতুলনিয়। গ্রামের মানুষ স্বাভাবিক আমাশয়, কৃমি, গরমে ও গরুর বিশেষ রোগের চিকিৎসায় ওষুধ হিসেবে বিচিকলা খায়। কিন্তু এখন বাজারে অনেক চেষ্টা করেও বিচি কলা পাওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। যাওবা পাওয়া যায় তা আবার সাগর, সবরি থেকে দাম অনেক বেশি ।

বানিজ্যিকভাবে এ কলার চাষ না হলেও প্রাকৃতিক ভাবে গ্রামবাংলার প্রতিটি বাড়ীতে পরিত্যক্ত জায়গায় এ কলা গাছ আপন মনে বেরে উঠে । কালের চক্রে হারিয়ে যেতে বসেছে এ কলা গাছ । শ্রাবণ ভাদ্র মাসে গ্রামবাংলা প্রতিটি মাঠে পাট কাটা শুরু হয়, এ পাট জাগানি বা পচাবে বিচি কলা গাছ সহজ বলে চাষিরা জাগানির উপর এ গাছ দিয়ে জাগানি চাপ দেয়। ফলে পর্যাক্রমে এ কলাগাছ হারিয়ে যাচ্ছে। অর‌্য কারণটি হল বর্ষাকালে গো-খাদ্যের অভাব হয়, সে সময় চাষিরা গো-খাদ্য হিসেবে কলা গাছ কেটে ব্যবহার করে। বাণিজ্যিক ভাবে সবরি, সাগরের মতো এ কলার চাষ শুরু করা দরকার। প্রয়োজনে এ কলার চাষের জন্য অন্য ফসলের মতো উপজেলা কৃষি সম্পপ্রসারণ বিভাগ কর্তৃক কলা চাষিদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। একই সাথে এ কলার পুষ্টিগুণ সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মধ্যে ধারণা দিতে হবে। তাহলেই হয়তো অত্যন্ত পুষ্টিগুণ ও সুস্বাদু এ কলা ফিরেয়ে আনা সম্ভব হবে।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া