বিত্তশালীরা রণদা প্রসাদের দৃষ্টান্ত অনুসরণ করতে পারেন : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ১৪ মার্চ, ২০১৯
মো. আল-আমিন খান
চীফ রিপোর্টার

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘মানুষের সেবা, নারী শিক্ষার প্রসারে রণদা প্রসাদ যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন, সমাজের বিত্তশালীরা রণদা প্রসাদের দৃষ্টান্ত অনুসরণ করতে পারেন।’ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এখানে প্রথম আসার কথা উল্লেখ করে বলেন, ১৯৫৬ সালে আমি যখন ছোট ছিলাম, বাবার (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) সাথে এই সুন্দর জায়গাটায় এসে ভর্তি হতে চেয়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রী এ সময় জনগণের কল্যানে কুমুদিনীর ট্রাস্টের মতো অন্যান্য প্রতিষ্ঠানকে এমন দৃষ্টান্ত অনুসরণ করার কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, কুমুদিনী ট্রাস্টের সার্বিক কাজে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। বৃহস্পতিবার ভারতেশ্বরী হোমসে দানবীর রণদা প্রসাদ সাহা স্মারক স্বর্ণপদক ও কুমুদিনীর ৮৬তম জন্মবাষিকীর অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন ছোট বোন শেখ রেহানা।

এ বছর ‘রণদা প্রসাদ সাহা স্মারক স্বর্ণপদক’ ২০১৯ এ ভূষিত হয়েছেন দেশের চার বরেণ্য ব্যক্তি। এই চার বরেণ্য ব্যক্তিরা হলেন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম ও হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীকে (মরণোত্তর) ও জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম ও শিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ। প্রধানমন্ত্রী তাদের হাতে স্মারক তুলে দেন।

সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য ২০১৫ সাল থেকে দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ‘রণদা প্রসাদ সাহা স্মারক স্বর্ণপদক’ চালু করেছে কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অব বেঙ্গল (বিডি) লিমিটেড। এর আগে এই পদক পেয়েছেন অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ, স্যার ফজলে হাসান আবেদ, অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, শাইখ সিরাজসহ কয়েকজন কৃতি ব্যক্তিত্ব।

এসময় মির্জাপুরে ৩১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিফলক উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কুমুদিনী ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার পর হেলিকপ্টারে করে ছোট বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে ঢাকা থেকে মির্জাপুরের কুমুদীনি কমপ্লেক্সে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী।

এরপর তিনি সেখানে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন।

কুমুদিনী ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অব বেঙ্গল (বিডি)।  এতে প্রধান অতিথি হিসেবে রণদা প্রসাদ সাহা স্মারক স্বর্ণপদক দেবেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে কুমুদিনী হাসপাতাল ও ভারতেশ্বরী হোমস পরিদর্শন করবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী কুমুদিনী কমপ্লেক্সের ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে ১৪টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও আরো ১৭টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

প্রধানমন্ত্রী যে ১৪টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন সেগুলো হচ্ছে- ধেরুয়া রেলওয়ে ওভারপাস , ৩৩/১১ কেভি সুইচিং স্টেশন, গ্রীড সাবস্টেশন বৈল্যা, রাবনা বাইপাস, টাঙ্গাইল ৩৩/১১ কেভি ২০ এমভিএ ইনডোর উপকেন্দ্র, ইন্দ্রবেলতা, পোড়াবাড়ি, টাঙ্গাইল নির্মাণ, বাসাইল,দেলদুয়ার ও নাগরপুর উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়ন, সখিপুর উপজেলা কমপ্লেক্সের প্রশাসনিক ভবন ও হলরুম সম্প্রসারণ, কালিহাতি (ধুনাইল)-সয়ারহাট হাতিয়া জেবিএ রাস্তা, মির্জাপুর উপজেলা কমপ্লেক্স সম্প্রসারিত ভবন, টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু ভিআইপি অডিটরিয়াম, মির্জাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স, মির্জাপুর ও টাঙ্গাইল উপজেলা প্রাণী সম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র নির্মাণ কাজ।

তিনি এলেঙ্গা-জামালপুর জাতীয় মহাসড়ক (এন-৪) প্রশস্তকরণ প্রকল্পের (টাঙ্গাইল অংশ) ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, এলেঙ্গা-ভুঞাপুর-চরগাবসারা সড়কে ১০টি ক্ষতিগ্রস্ত সেতু ও একটি কালভার্ট পুন:নির্মাণ, আঞ্চলিক মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, টাঙ্গাইল-দেলদুয়ার মহাসড়ক, করটিয়া-বাসাইল সড়ক এবং পাকুল্লা-দেলদুয়ার-এলাসিন সড়কের প্রশস্তকরণ প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, কালিহাতি উপজেলা কমপ্লেক্সের প্রশাসনিক ভবন সম্প্রসারণ ও হলরুম নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, করটিয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাসাইল নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, দেলদুয়ারে বাতেন বাহিনী মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, ঘাটাইলে রসুলপুর ভূমি অফিস, লোকরেপাড়া ভূমি অফিসের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, দেলদুয়ার উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অফিসের নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, টাঙ্গাইল সদরের মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, বাসাইল উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, সখিপুর, মধুপুর ও মির্জাপুর উপজেলা ভূমি অফিস নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন এবং টাঙ্গাইল সার্কিট হাউজের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করেন।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী ভারতেশ্বরী হোমস মাল্টিপার্পাস হল এবং ইনস্টিটিউট অব পোস্ট গ্রাজুয়েট নার্সিং কমপ্লেক্স অন কমুদিনী কমপ্লেক্সের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।
অনুষ্ঠানে দেশের অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও উন্নয়ন কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

সর্বশেষ সংবাদ




এইমাত্র পাওয়া