বি.বি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের অশালিন মন্তব্য : শিক্ষকের কারাদন্ড

প্রকাশিত : ১ অক্টোবর, ২০১৮
গণবিপ্লব
রিপোর্ট

মো. আল-আমিন খানঃ

টাঙ্গাইল বিন্দুবাসিনী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের উত্ত্যক্তকারী শিক্ষকের এক বছর কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। ছাত্রীদের উত্ত্যক্তে অভিযুক্ত সাইদুর রহমান বাবুল (৪২)ওই বিদ্যালয়ের সহকারি ইংরেজী শিক্ষক ও কালিহাতী উপজেলার পারখী গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।

সোমবার (০১ অক্টোবর) দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শাহরিয়ার রহমান পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালত ছাত্রীদের উত্ত্যক্তে অভিযুক্ত বিদ্যালয়ের সহকারি ইংরেজী শিক্ষক সাইদুর রহমান বাবুল (৪২) কে এক বছরের কারাদন্ড প্রদান করেন।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই শ্রেণিকক্ষে ছাত্রীদের অশালিন মন্তব্য ও কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল শিক্ষক সাইদুর রহমান বাবলু। এরই ধারাবাহিকতা (৩০ সেপ্টেম্বর) রোববারও নবম শ্রেনির এক ছাত্রীকে কু-প্রস্তাব দেয়। স্কুল ছুটির পর ছাত্রীরা অভিভাবকদের অশালিন মন্তব্য ও কু-প্রস্তাব দেয়ার ঘটনাটি জানালে সোমবার সকালে বিক্ষুব্ধ ছাত্রীরা ক্লাস বর্জন করে অভিভাবকদের ওই শিক্ষককে অবরুদ্ধ করে গণধোলাই দেয়।

শিক্ষককে গণধোলাই দেয়ার সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্ত ওই শিক্ষক সাইদুর রহমান বাবুলকে আটক করাসহ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আশরাফুল মমিন খান, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার শরিফুল হক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজাউর রহমান, টাঙ্গাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সায়েদুর রহমানসহ অভিভাবক ও ছাত্রীদের সমন্বয়ে পরবর্তী করনীয় সভায় ভ্রাম্যমান আদালতে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। পরে পুলিশী পাহাড়ায় অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করে।

এ প্রসঙ্গে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শাহরিয়ার রহমান গণবিপ্লবকে জানান, ছাত্রীদের অশালিন মন্তব্য ও কু-প্রস্তাব দেয়ার অভিযোগে সত্যতা পাওয়া বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত সহকারি ইংরেজী শিক্ষক সাইদুর রহমান বাবুল (৪২) কে ভ্রামামান আদালতের মাধ্যমে ১৮৬০ সালের দন্ডবিধি ৫০৯ ধারা অনুযায়ী এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ছাত্রীদের অশালিন মন্তব্য ও কু-প্রস্তাব দেয়ার অপরাধে যদি প্রচলিত আইনে অভিভাবকরা কোন মামলা দায়ের করেন তাহলে সে অভিভাবককে আইনী সহায়তা দেয়াসহ কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাসও দেন তিনি।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ