বড় চালান আসলেও ঝাঁজ কমেনি পেঁয়াজের

প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর, ২০১৯
গণবিপ্লব অনলাইন
ডেস্ক রিপোর্ট

নীলফামারী ২৫ নভেম্বর : মিশর, পাকিস্তান ও তুরস্ক থেকে পেঁয়াজের বড় চালান আসার পর দেশের বাজারে দাম কিছুটা কমতে শুরু করেছিল। কিন্তু গত দুদিন ধরে পেঁয়াজের ঝাজ আবারও বাড়তে শুরু করেছে। এর প্রভাব পড়েছে উত্তরের জেলা নীলফামারীর পেঁয়াজের বাজারে।

সৈয়দপুরে গত সপ্তাহে পেঁয়াজের দাম ছিল যেখানে ১৪০-১৫০ টাকা। অথচ গত দুদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে ২১০-২৫০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে পর্যাপ্ত পেঁয়াজের আমদানি থাকলেও প্রশাসনের নজরদারির অভাবে ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়েছে বলে অভিযোগ ভোক্তাদের। এদিকে ব্যবসায়ীদের দাবি, পেঁয়াজের আমদানি কম হওয়ায় পেঁয়াজের দাম বেড়েছে।

রবিবার (২৪ নভেম্বর) বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি বাজারেই শুধু দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। দেশের বাইরে থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ এবং দেশীয় নতুন মুড়িকাটা পেঁয়াজ বাজারে এখনো ওঠেনি। এতে দাম বেশি হলেও ক্রেতা-বিক্রেতাদের দেশি পেঁয়াজের ওপরই নির্ভর করতে হচ্ছে। আর এই সুযোগে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে ব্যবসায়ীরা।

সৈয়দপুর রেল বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা এক ভোক্তা বলেন, গত সপ্তাহে ১৪০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কিনেছিলাম। কিন্তু বাজারে এসে দেখি ২৫০ টাকায় প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। পাতা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০-১০০ টাকা দরে।

পেঁয়াজ ব্যবসায়ী রাজু আহমেদ বলেন, গত সপ্তাহে পেঁয়াজের দাম অর্ধেকে নেমেছিল। উপজেলায় নতুন মুড়িকাটা পেঁয়াজ বাজারে না ওঠায় পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমরা পেঁয়াজ কিনে বিক্রি করি। তাই বেশি দামে কিনে বিক্রিও করতে হচ্ছে বেশি দামে।

এ বিষয়ে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম গোলাম কিবরিয়া বলেন, পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি জেনেছি। দ্রুত বাজার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করতে অভিযান চালানো হবে।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ