মধুপুরে কমিটি বিহীন মাদ্রাসা শিক্ষকের নির্মম প্রহারে ছাত্র হাসপাতালে

প্রকাশিত : ৪ এপ্রিল, ২০১৮
গণবিপ্লব
রিপোর্ট

লিটন সরকারঃ

টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌর সভার আকাশী শেওড়াতলা এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘উলূমে দ্বীনিয়াহ্ মাদ্রাসা’য় শ্রেণি শিক্ষকের বেদম প্রহারে এক ছাত্রকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হেফজ বিভাগের ওই ছাত্রের নাম রিফাত হোসাঈন।
স্থানীয়রা জানায়, শহরের নজরুল ইসলাম নামে একব্যক্তি ২০০৮ সালে ‘উলূমে দ্বীনিয়াহ্’ নামে মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে এ পর্যন্ত মাদ্রাসাটিতে কোন পরিচালনা কমিটি নেই। সোমবার(২ এপ্রিল) হেফজ বিভাগের শ্রেণি শিক্ষক ফজলুর রহমান শব্দের উচ্চারণ সঠিকভাবে করতে না পারার অপরাধে রিফাত হোসাঈনকে বেধড়ক প্রহার করেন। এতে রিফাত হোসাঈন অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।
এলাকার শিক্ষক হারুন অর রশিদ, দলিল লেখক আব্দুল মান্নান সহ অনেকেই জানান, রিফাত ছেলেটির ২ বছর বয়সে মা মারা যাওয়ার পর বাবা অনেক কষ্টে তাকে পড়ালেখা করাচ্ছেন। তারা জানান, ওই শিক্ষক এরআগেও বহুবার ছাত্রদেরকে মারপিট করলে এলাকায় কয়েক দফায় সালিশি বৈঠক হয়েছে। এসব ঘটনার পরও মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা নজরুল ইসলাম কোন ব্যবস্থা নেয়নি। ফলে আবারও রিফাত নামে এক ছাত্র শিক্ষকের বেধড়ক বেত্রাঘাতে আহত হয়েছে। তারা এ ঘটনায় জড়িত শিক্ষক ফজলুর রহমানের শাস্তি দাবি করেন।
আহত রিফাতের বাবা নুরুজ্জামান জানান, তার ছেলে অঅরবি ‘ফাঁ’ শব্দটি সঠিকভাবে উচ্চারণ করতে না পারায় যেভাবে পিটানো হয়েছে তা কোনভাবেই একজন শিক্ষকের কাজ হতে পারেনা। তিনি ফজলু মাস্টারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।
অভিযুক্ত শিক্ষক ফজলুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তাঁদের কাজ শিক্ষার্থীদের শিখানো। পড়া না পাড়লে এক-আধটু শাসন করতেই হয়।
মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা নজরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক রাশেদুজ্জামান জানান, চিকিৎসা দেয়ার পর ছেলেটি বর্তমানে আশঙ্কামুক্ত। তবে, পুরোপুরি সুস্থ হতে কিছুদিন সময় লাগবে।
মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) শফিকুল ইসলাম জানান, বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত নন। কেউ অভিযোগ করলে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

আপনার মতামত দিন

You must be Logged in to post comment.

এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ