রাওধার লাশ দেখতে মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত রাজশাহীতে

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ, ২০১৭

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ

রাওধার লাশ দেখতে ও আত্মহত্যার পেছনে খোঁজ-খবর নিতে বিমানযোগে রাজশাহীতে এসে পৌঁছেন মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত আয়েশাথ শান শাকির এবং কমনওয়েলথের দ্বিতীয় সেক্রেটারি ইসমাইল মুফিদ। বৃহস্পতিবার বিকাল পৌনে চারটার দিকে তাঁরা রাজশাহীতে এসে প্রথমে ইসলামী ব্যাংক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যান।
এসময় তাঁরা কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন। পরে সেখান থেকে তাঁরা রাজশাহী সার্কিট হাউজে গিয়ে ওঠেন। বিমানযোগে বিকাল চারটা নাগাদ তারা রাজশাহী এসে পৌঁছেন। এরপর তারা রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন। সেখান থেকে হাসপাতাল মর্গে আসার কথা রয়েছে তাদের।
পুলিশ সূত্র মতে, রওধার বাবা মোহাম্মদ আতিফ মা মা আমিনাথ মুহারমিমাথ মাইক্রোযোগে ঢাকা থেকে রওনা দিয়েছেন বলেও নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ইফতে খায়ের আলম।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের হিমঘরে রাখা রাওধার লাশ স্বজনরা দেখার পরেই ময়নাতদন্ত করা হবে। এরপর পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।


এদিকে রাওধার আত্মহত্যার ঘটনায় গতকাল বুধবার রাতেই রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের পক্ষ থেকে একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে। হাসপাতালের সচিব আব্দুল আজিজ রিয়াজ বাদী হয়ে ওই মামলাটি করেন বলে নগরীর শহামখদুম থানার ওসি জিল্লুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে বুধবার রাওধা আতিফ (২০) মৃতদেহ রাজশাহীর ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের হোস্টেল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। তিনি ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। বিদেশি কোটার ছাত্রী ছিল রাওদা। ২০১৬ সালের ১৪ জানুয়ারি ওই রুমে উঠেন তিনি। আতিফের মায়ের নাম আমিনা মহাসিমাত। বাড়ি মালদ্বীপে।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব
এইমাত্র পাওয়া