সখীপুরে ফাইল্যা পাগলার মেলা শুরু

প্রকাশিত : ৭ জানুয়ারী, ২০২০

সখীপুর ৭ জানুয়ারি : টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার পশ্চিমে দাড়িয়াপুর গ্রামের ফাইল্যা (ফালুচাঁন) পাগলার মাজারকে কেন্দ্র করে মাজার সংলগ্ন এলাকায় জমে উঠেছে ফাইলা পাগলার মেলা।

২০০৩ সালে আকস্মিক বোমা হামলার কারণে কয়েক বছর মেলাটির অচলবস্থার পর অসংখ্য ভক্ত, মানতকারী ও দর্শকদের আনাগোনায় পুনরায় প্রাণ ফিরে পেয়েছে মেলাটি।

২০০৩ সালের ১৮ জানুয়ারী রাত সাড়ে ৮টার দিকে পরপর দুটি বোমা বিস্ফোরণে সাতজন নিহত ও আরো ১০ জন চোখ, হাত ও পা হারিয়ে গুরুতর আহত হয়েছিলো। এ ঘটনায় আহত মোহাম্মদ আলী ও পা হারানো রবিন আজো বেঁচে আছে সেই ভয়ঙ্কর রাতের সাক্ষী হয়ে।

চলতি আরবী মাসের শুরু থেকে মেলা শুরু হলেও মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) থেকে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে।

আগামি পূর্ণিমা রাতে সবচেয়ে বড় মেলা হলেও সারা মাসই থাকবে মানতকারী মানুষের আনাগোনা।

প্রতিদিন অনেক দুর-দুরান্তের হাজার হাজর লোকজন মানত করা মোরগ, খাঁসি, গরু, মোমবাতিসহ নানা রকম পণ্য সামগ্রী নিয়ে লালমাটির পাহাড়ী এলাকা দাড়িয়াপুকে গড়ে তুলেছে এক মিলন কেন্দ্র হিসাবে।

তবে আগত ভক্তদের অভিযোগ, আবাদি বাজার থেকে মেলায় আসার সড়কটির অবস্থা খুবই খারাপ। বৃষ্টির কারণে এর অবস্থা আরো বেহাল হয়ে পড়েছে। যেকারণে দুর-দুরান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষের বিড়ম্বনার শেষ নেই।

মেলা উৎযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার হোসেন মাস্টার গণবিপ্লবকে জানান, ‘এ বছর প্রশাসনের অনুমতিক্রমে ৭ দিনব্যাপী মেলা উদযাপনের উদ্দ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সখীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আমির হোসেন গণবিপ্লবকে বলেন, মেলার দিনগুলো নিরাপত্তার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ বছরও মেলা সুষ্ঠভাবে উৎযাপিত হবে বলে আশা করছি।’

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব
এইমাত্র পাওয়া