বিন্দুবাসিনী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে চ্যাম্পিয়ন বায়াল বয়েজ-১২ ব্যাচ

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ন ফুটবল ফাইনাল খেলায় বায়াল বয়েজ ২০১২ ব্যাচ দল ট্রাইবেকারে (৩-০) গোলে দুরন্ত ২০১৬ ব্যাচ দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) রাতে টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে ফ্লাড লাইটের আলোয় বিন্দুবাসিনী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রদের বিন্দুবাসিনী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপের খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর আসনের সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন।

বিন্দুবাসিনী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল করিমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মির্জা মঈনুল হোসেন লিন্টু ও শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ। তৃতীয় বারের মতো আয়োজিত বিন্দুবাসিনী চ্যাম্পিয়নশীপের ব্যবস্থাপনায় ছিলেন টাঙ্গাইল পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র এবং বিন্দুবাসিনী ১৯৮৯ ব্যাচের সাইফুজ্জামান খান সোহেল।


ফ্লাড লাইটের আলোয় গ্যালারিতে মোবাইলের টসের আলো দিয়ে প্রচুর দর্শক সমাগমের ফুটবল ম্যাচ ছিল খুবই আর্কষনীয়। বিশেষ করে বায়াল ২০১২ ব্যাচ দল বনাম দুরন্ত ২০১৬ ব্যাচ দলের ফুটবল ফাইনাল ম্যাচটিতে গতিময় ফুটবল খেলায় মেতে ছিল দুই দলই। দু’দলই গতিকে ব্যবহারের মাধ্যমে আক্রমন করে খেলেছে। মাঝে ফাউলের কারনে ফুটবল তরুন ফুটবলাররা ঝগড়ায় মেতে উঠলে রেফারী জামিলুর রহমান শক্ত হাতে সামাল দিয়েছে। তারপরও দু’দলের খেলাটি নির্ধারিত সময়ে গোল শূন্য ড্র হলে খেলা ট্রাইবেকারে গড়ায়।

ট্রাইব্রেকারে বায়াল বয়েজ ২০১২ ব্যাচ দল দুরন্ত ২০১৬ ব্যাচ দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। ট্রাইব্রেকারে বায়াল বয়েজের পক্ষে মধুপম, আসিফ ও লিমন গোল করে।


দু’দলে যে খেলোয়াড় অংশগ্রহণ করেছে তারা হলো- বায়াল বয়েজ ২০১২ ব্যাচ দল- রাকিল, শুভ, মুয়াজ, নয়ন, তুষার, ইমন, সাদমান (অধিনায়ক),সাদিক, সজল ও ফজল।


দুরন্ত ২০১৬ ব্যাচ দল- বিজয় (অধিনায়ক), তুষার, লিমন, চয়ন, নাহিদ, মশিউর, রাহাত, শান্ত, সোহাগ, লিমন টেপা ও আসিফ।
রেফারী- জামিলুর রহমান জামিল। সহকারী রেফারী- রনি আহমেদ ও লিটন।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব
এইমাত্র পাওয়া
error: দাঁড়ান আপনি জানেন না কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ। কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে নিন।