মির্জাপুরে সেই আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ

প্রকাশিত : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

মির্জাপুর ৮ ডিসেম্বর : টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির সেই ডিলার আওয়ামীলীগ নেতা মো. আওলাদ হোসেনের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। রোববার (৮ ডিসেম্বর) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল মালেক সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. মঈনুল হককে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

জানা গেছে, উপজেলার উয়ার্শী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আওলাদ হোসেন খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ওই ইউনিয়নের ডিলার। তিনি সজীব ট্রেডার্স নামে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল উত্তোলন করে থাকেন। তিনি নভেম্বর মাসে ১০ টাকা কেজি দরে ৫৩৯ জন হতদরিদ্র কার্ডধারীর জন্য উপজেলা খাদ্য গুদাম থেকে ১৬ হাজার ১৭০ কেজি চাল উত্তোলন করেন। কিন্ত ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত অর্ধশতাধিক কার্ডধারী ডিলারের দোকানে গিয়ে চাল কিনতে না পেরে খালি হাতে ফিরে আসেন। এ ছাড়া ডিলার কার্ডধারীদের কাছে চাল বিক্রি না করে ওই চাল ২ ডিসেম্বর শেষ রাতে পিকআপযোগে অন্যত্র বিক্রি করে দেন বলে অভিযোগ উঠে। গভীর রাতে অন্যত্র চাল বিক্রির ঘটনাটি বাজারের পাহারাদার সুলতান মিয়া ও চা দোকানদার সেকান্দার দেখেন এবং সকালে বাজার ব্যবসায়ী সমিতিকে অবহিত করেন। ঘটনাটি জানাজানি হলে কার্ডধারী ও স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

এদিকে চাল কিনতে না পারা কার্ডধারীরা বেলাল হোসেন (৯৭৬), শহিদুর রহমান (৯৮৯), ভাষাণ মণ্ডল (১০০২), ব্রজবাসী মণ্ডল (১০০৫), বিভাষ মণ্ডল (১০০১), টুষ্টু মণ্ডল (১০০৪) রোববার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেক কার্ডধারীদের অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে গণবিপ্লবকে বলেন, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. মঈনুল হককে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

সাপ্তাহিক গণবিপ্লব
এইমাত্র পাওয়া